যশোরের ঝিকরগাছায় সবজিপল্লী খ্যাত বারবাকপুরে রেকর্ড পরিমাণ সবজি উৎপাদন

এম.আমিরুল ইসলাম(জিবন) স্টাফ রিপোর্টারঃ যশোরের ঝিকরগাছায় এবারের শীত মৌসুমে রেকর্ড পরিমাণ সবজি উৎপাদন হয়েছে। উৎপাদনে লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে উপজেলার গদখালী ইউনিয়ন।

এই ইউনিয়নের বারবাকপুর গ্রামব্যাপি সবজি আবাদ চোঁখে পড়ার মত। বাঁধাকপি ও ফুলকপির উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। এবার ৩শ‘ হেক্টর জমিতে বাঁধাকপি ও ২০/২৫ হেক্টর জমিতে ফুলকপির চাষ হয়েছে। উৎপাদন ভালো হওয়া ও কাঙ্খিত বাজারদর পাওয়ায় উৎপাদক কৃষকেরা তাই দারুণ খুশি। প্রতি কেজি বাঁধাকপি বাজারে খুচরা বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২৫ টাকা। পক্ষকাল আগেও বাজারে কপির খুচরা মূল্য ছিলো প্রতি কেজি ৩০ থেকে ৩৫ টাকা।
আগাম বাজারজাত করতে পেরে কৃষকেরা লাভের টাকা ঘরে তুলেছেন। সরেজমিন সবজিপল্লী বারবাকপুর-মধুখালী বিস্তীর্ণ সবজি ক্ষেতের মাঠে গিয়ে দেখা যায় একের পর এক বাঁধাকপির ক্ষেত। কৃষাণেরা ক্ষেত থেকে বাঁধা ও ফুলকপি তুলতে দারুণ কর্মব্যস্ত। যেন কথা বলার ফুসরত নেই তাদের! তবে সবার চোঁখে মুখে তৃপ্তির হাসি।

কৃষকরা জানিয়েছেন, প্রতিবিঘা জমিতে বীজতলা তৈরি, চারারোপণ, সার, সেচ, কীটনাশক ও পরিচর্যা ইত্যাদি বাবদ খরচ দাঁড়ায় ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা। উৎপাদিত কপি প্রতি বিঘায় ৬০ থেকে ৮০ মন হিসাবে কৃষকের নীট মুনাফা অর্জন করেন ৫০ থেকৈ ৬০হাজার টাকা। কথা হয়, ব্রুকলি সবজি চাষে সাড়া ফেলে দেওয়া বারবাকপুর গ্রামের আলী হোসেন জানান, তিনি ৬ বিঘা জমিতে ফুলকপি ও ৪ বিঘা জমিতে বাঁধাকপির চাষ করেছেন।

এবছরও দেড়বিঘা জমিতে ব্রুকলি সবজি চাষের জন্য বীজতলা প্রস্তুত করেছেন। উদ্যোমী তরুণ কৃষক আসলাম খান জানান, এবছর নিজের ৩ বিঘা জমিতে বাঁধাকপি ও দুই বিঘা জমিতে ফুলকপির আবাদ করেছেন। প্রতিবিঘায় বাঁধাকপি উৎপাদন হয়েছে ৬০ থেকে ৬৫মন। ফুলকপি ৪০ থেকে ৪৫মন। কৃষক আব্দুল গফুর, আলাউদ্দিন, মহিউদ্দিন, আলী নেওয়াজ বাবলু ও সোয়ারাব হোসেন জানিয়েছেন, ১৫ থেকে ২০বিঘা করে কপির আবাদ করেছেন।

ফলনও ভালো হয়েছে। তারা বাজারদর পেয়েছেন প্রতিমন বাঁধাকপি ৮শ থেকে ১হাজার টাকা ও প্রতিমন ফুলকপি ১৭/১৮শ টাকা। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের গদখালী ইউনিয়নের বোধখানা ব্লকের দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আইয়ুব হোসেন জানান, পরিকল্পিত চাষাবাদে তার ব্লকের কৃষকেরা প্রতিবারের মত এবারও সাফল্য অর্জন করেছেন। আর্থিক ভাবে লাভবান হওয়ায় চাষাবাদে উদ্বুদ্ধ হচ্ছেন কৃষকেরা। তিনি জানান, চুঁইঝাল ও সজনে আবাদে তার ব্লকের কৃষকদের মাঝে নতুন মাত্রা যুক্ত করেছে।

শেয়ার করুন

Bangla Somoy

Pradip Barua Joy is the Editor and Publisher of the News Portal (banglasomoy.com). He is the recognized Journalist and working in this profession about 21 years. He is the proprietor of Water Guard Bangladesh & Mam Industrial Engineering. As a online activist and online market establisher he is the well known person of our country.