নতুন ৪ টিসহ মোট ৪২টি পণ্য রপ্তানীতে নগদ সহায়তা দিচ্ছে সরকার

অনলাইন নিউজঃ আরো চার খাতে রপ্তানিতে নগদ সহায়তা দেবে সরকার। গত অর্থবছরের ৩৮টি পণ্যের সঙ্গে চলতি অর্থবছরে (২০২১-২২) নতুন এই চারটি মিলে এখন মোট ৪২টি পণ্য রপ্তানিতে বিভিন্ন হারে নগদ সহায়তা দেওয়া হবে।

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা ও নীতি বিভাগ এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

সার্কুলারে বলা হয়, ১ জুলাই থেকে শুরু হওয়া চলতি অর্থবছরে নতুন যে চারটি খাত বা পণ্য যোগ করা হয়েছে, তাদের ৪ শতাংশ হারে নগদ সহায়তা দেয়া হবে। এসব খাতের মধ্যে রয়েছে দেশে উৎপাদিত চা, বাইসাইকেল ও এর পার্টস, এমএস স্টিল প্রোডাক্টস এবং সিমেন্ট শিট।

এ ছাড়া বিশেষায়িত অঞ্চলের (বেজা, বেপজা ও হাইটেক পার্ক) বিদ্যমান সহায়তার আওতা বাড়ানো হয়েছে।

বিদ্যমান সুবিধা ছাড়াও বিশেষায়িত অঞ্চলের ‘এ’ টাইপ ও ‘বি’ টাইপ প্রতিষ্ঠান প্রক্রিয়াজাত কৃষিপণ্য রপ্তানির বিপরীতে ৪ শতাংশ হারে নগদ সহায়তা পাবে। বিশেষায়িত অঞ্চলের সব ক্যাটাগরিভুক্ত প্রতিষ্ঠান দেশের বাইরে অন্যান্য পণ্য রপ্তানির ক্ষেত্রে ১ শতাংশ হারে রপ্তানি প্রণোদনা সহায়তা পাবে।

সার্কুলারে আরও বলা হয়েছে, সফটওয়্যার আইটিইএস সেবা রপ্তানির বিপরীতে ব্যক্তি পর্যায়ের ফ্রিল্যান্সারদের জন্য ৪ শতাংশ হারে নগদ সহায়তা দেয়া হবে। ফ্লোট গ্লাস শিট, ওপাল গ্লাসওয়্যার, কাস্ট আয়রন ও অ্যালুমিনিয়াম ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য হাল্কা প্রকৌশল পণ্য খাতের আওতায় রপ্তানি ভর্তুকির জন্য বিবেচিত হবে মর্মে সার্কুলারে জানানো হয়েছে।

পাশাপাশি উচ্চ প্রযুক্তিসম্পন্ন পণ্য (কম্প্রেসার) এবং এইচসিএফসিমুক্ত রেফ্রিজারেটর ইলেক্ট্রনিক পণ্য হিসেবে কনজিউমার ইলেকট্রনিক্স, ইলেকট্রিক্যাল হোম ও কিচেন অ্যাপ্লায়েন্স খাতের আওতায় রপ্তানি ভর্তুকি প্রাপ্য হবে। সার্কুলারে আরও বলা হয়েছে যে, প্রযোজ্য সব খাতে নগদ সহায়তা/রপ্তানিভর্তুকি/প্রণোদনা সহায়তা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট রপ্তানির বিপরীতে ন্যূনতম ৩০ শতাংশ দেশীয় মূল্য সংযোজন থাকতে হবে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় অনুমোদিত সংশ্লিষ্ট রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশন ব্যক্তি পর্যায়ের ফ্রিল্যান্সারদের রপ্তানি ভর্তুকির আবেদন প্রত্যয়ন করবে। রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের অবর্তমানে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ ব্যক্তি পর্যায়ে ফ্রিল্যান্সারদের রপ্তানি ভর্তুকি আবেদন প্রত্যয়ন করবে।

রপ্তানি মূল্য প্রত্যাবাসনের এক বছর বা ৩৬০ দিনের মধ্যে রপ্তানি ভর্তুকির আবেদন দাখিল করা যাবে এবং কোনো একক ব্যক্তি অর্থবছরভিত্তিক সব প্রত্যাবাসিত আয়ের বিপরীতে এক বা একাধিক আবেদন করতে পারবেন। আবেদনকারী ফ্রিল্যান্সারদের রেজিস্টার্ড ফ্রিল্যান্সার আইডি কার্ড থাকতে হবে।

শেয়ার করুন