ইতালিতে বিমান থেকে নামতে না দেয়া বাংলাদেশীরা এখন হজ্ব ক্যাম্পে

ইতালির রোমের ফিউমিসিনো বিমানবন্দর থেকে করোনা সংক্রমণের ভয়ে বিমান থেকে নামতেই দেননি বিমান কর্তৃপক্ষ এবং ঐ বিমানেই ফেরত পাঠানো হয় ১২৫ বাংলাদেশিকে।

আজ শুক্রবার ভোরে কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তারা। এরপরই তাদের রাজধানীর আশকোনা হজক্যাম্পে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। গণমাধ্যমকে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর স্বাস্থ্য বিভাগের একজন চিকিৎসক।

এ বিষয়ে বিমানবন্দর পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন এইচ এম তৌহিদ উল আহসান বলেন, ইতালি থেকে ফেরত আসা এসব বাংলাদেশির প্রথমে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। এরপর সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে আশকোনা হজক্যাম্পে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়েছে বিমানবন্দর স্বাস্থ্য বিভাগ।

সম্প্রতি বাংলাদেশ থেকে ইতালিতে যাওয়া একটি ফ্লাইটের ২১ জন যাত্রীর শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়। এর পরপরই এক সপ্তাহের জন্য বাংলাদেশি সকল ফ্লাইট নিষিদ্ধ করে দেশটির কর্তৃপক্ষ। পরবর্তীতে নিষেধাজ্ঞার এ সময় আগামী ৫ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার সূত্র ধরে গত ৮ জুলাই রোমের ফিউমিসিনো বিমানবন্দরে অবতরণকারী কাতার এয়ারওয়েজের একটি বিমান থেকে ১২৫ বাংলাদেশিকে নামতে দেয়া হয়নি। কাতার এয়ারওয়েজের ফ্লাইটটি দোহা থেকে ফিউমিসিনো বিমানবন্দরে অবতরণের পর পাঁচ নম্বর টার্মিনালে দীর্ঘক্ষণ অবস্থান করে।

ইতালির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়, ওই বিমানে থাকা ১২৫ বাংলাদেশি আরোহীকে নামতে দেয়া হবে না। তবে কারো জরুরি মেডিকেল সেবার দরকার হলে চিকিৎসার জন্য নামার অনুমতি পাবেন। পরে রোমের স্থানীয় সময় বিকেল ৪টায় ওই ফ্লাইটেই বাংলাদেশি যাত্রীদের আবার দোহায় ফেরত পাঠিয়ে দেয়া হয়। তবে বিমানে থাকা অন্য দেশের যাত্রীরা নামার অনুমতি পান।

 

শেয়ার করুন