প্রচ্ছদ     আন্তর্জাতিক

2019-10-01 22:08:38

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বাংলাদেশীদের ফেরত পাটাচ্ছে ভারত, আসাম থেকে শুরু

Picture Missiong

ভারতের উত্তরপ্রদেশ রাজ্য থেকে কথিত বাংলাদেশিদের শনাক্ত করে ফেরত পাঠাতে পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। আরেক রাজ্য আসামে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) প্রকাশের পর উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর এমন নির্দেশকে ওই রাজ্যেও এনআরসির বিষয়ে বিশেষ উদ্যোগ বলে ধারনা করা হচ্ছে।

গতকাল মঙ্গলবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, বাংলাদেশি ও অন্যান্য বিদেশিদের শনাক্ত করে নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য রাজ্য পুলিশকে নির্দেশ দেন যোগী আদিত্যনাথ।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ পাওয়ার পর উত্তরপ্রদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক এক চিঠিতে সব জেলা পুলিশের প্রধানকে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বলেছেন। এই নির্দেশকে অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার জন্য খুবই গুরত্বপূর্ণ বিষয় হিসেবে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

রাজ্য পুলিশের মহাপরিদর্শক চিঠিতে উত্তরপ্রদেশের সব জেলায় ট্রান্সপোর্ট হাব এবং বস্তি এলাকাগুলোতে চিরুনি অভিযান চালানোর নির্দেশ দিয়েছেন। সন্দেহভাজন যে কোনো ব্যক্তিকে তল্লাশি ও তার সব নথি যাচাই-বাছাইয়েরও আদেশ দেয়া হয়েছে। নির্দেশ নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বাস্তবায়নের পাশপাশি এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের দ্বারা পর্যবেক্ষণ করা হবে বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

সম্প্রতি প্রকাশিত এনআরসিতে আসামের প্রায় ১৯ লাখ মানুষকে বাদ দেয়া হয়েছে। বিতর্কিত ওই এনআরসি নিয়ে ভারতে এবং ভারতের বাইরেও ব্যাপক সমালোচনা চলছে।

আসামের এনআরসি নিয়ে গত মাসে যোগী আদিত্যনাথ প্রশংসা করে বলেন, ‘প্রয়োজনে উত্তরপ্রদেশেও আসামের মতো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। জাতীয় নিরাপত্তার জন্য আসামের এনআরসি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’

উল্লেখ্য, ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য থেকে বাংলাভাষী কিছু মানুষ কাজের সন্ধানে উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন জেলায় যাতায়াত করে থাকে। বাংলাভাষী হিসেবে তাদেরকে বাংলাদেশি হিসেবে অভিহিত করে থাকে উত্তরের রাজ্য প্রশাসন। সম্প্রতি আগ্রায় এমন কিছু বাংলাভাষী মানুষকে আটক করে আগ্রা পুলিশ। তাদের সকলেই পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানের বাসিন্দা বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন