প্রচ্ছদ     আন্তর্জাতিক

2019-09-09 12:16:16

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ইরানে ২৮,০০০ কোটি টাকার বিনিয়োগ করবে চীন। উভয় পক্ষের চুক্তি স্বাক্ষর

Picture Missiong

ইরানে ২৮ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে চীন। মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় জর্জরিত ইরানের নাজুক অর্থনীতির গতি ফেরাতেই ‘বন্ধু বেইজিং’ ইরানে এই বিনিয়োগের পরিকল্পনা করছে। বিনিয়োগের এসব খাত হবে তেল, গ্যাস এবং পেট্রোকেমিক্যাল।

মধ্যপ্রাচ্যের ঘটনা পর্যবেক্ষণ বিষয়ক সংবাদমাধ্যম মিডল ইস্ট মনিটর গতকাল শনিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে। তারা পেট্রোলিয়াম ইকোনমিস্ট সাময়িকীকে উদ্ধৃত করেই বিশ্ববাজারে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী চীনের ইরানে বিনিয়োগের খবরটি দিচ্ছে।

পেট্রোলিয়াম ইকোনমিস্ট মূলত বিশ্বব্যাপী জ্বালানি বিষয়ক ঘটনা নিয়ে খবর জানায়। তারা ইরানের তেল মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ সূত্রের বরাতে বলছে, চীন এবং ইরান যে চুক্তি করতে যাচ্ছে তার মধ্যে বড় হাজার কোটি ডলারের এই বিনিয়োগের বিষয়টি অন্যতম।

মিডল ইস্ট মনিটর বলছে, গত মাসের শেষে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ বেইজিং সফরে গিয়েছিলেন। তখন চীনের সঙ্গে তার দেশের বড় এই বিনিয়োগের বিষয়টি চূড়ান্ত হয়। এছাড়াও চীন ইরানের তেল ও শিল্প অবকাঠামো খাতে ১২ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগ করবে বলে জানা গেছে।

চুক্তি কার্যকর হওয়ার পর পরবর্তী পাঁচ বছরে এই বিনিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। যদি উভয় দেশ সম্মত হয় তাহলে ওই সময়ের মধ্যে চীন ইরানে আরও বেশ কিছু বিনিয়োগ করতে পারে বলেও আভাস দিয়েছে পেট্রোলিয়াম ইকোনমিস্ট।

বিপুল এই বিনিয়োগের জন্য চীনকে বিশেষ অগ্রাধিকার দেবে ইরান। তার মধ্যে অন্যতম হলো তেল, গ্যাসক্ষেত্র ও পেট্রোকেমিক্যাল প্রকল্প। এসব খাতে চীনা কোম্পানিগুলোকে অগ্রাধিকার দেবে ইরান। তবে প্রকল্পের নিরাপত্তা নিশ্চিতে ইরানে ৫ হাজার নিরাপত্তা কর্মকর্তা পাঠাবে বেইজিং।

চুক্তি অনুযায়ী, চীন ইরানের কাছ থেকে কম মূল্যে তেল, গ্যাস ও পেট্রোকেমিক্যাল পণ্য কেনার সুবিধা পাবে। শুধু বিশেষ এই সুবিদা নয় এসব পণ্য কেনার পর দুই বছর পর্যন্ত মূল্য পরিশোধের সুযোগ পাবে চীন। যার মূল্য পরিশোধ হবে চীনা মুদ্রা ইউয়ান কিংবা অন্য ‘লাভজনক’ মুদ্রায়।

মন্তব্য লিখুন